জাদুকাটা নদীটি সুনামগঞ্জের একটি অপরূপ নদী


শুক্রবার,১৫/১২/২০১৭

অাতাউল ইসলাম মাসুম, ঢাকা, বাংলা‌দেশ: নদীটির নাম জাদুকাটা নদী। ভারতের মেঘালয় পাহাড় থেকে উৎপত্তি হওয়া জাদুকাটা নদীটি সুনামগঞ্জের একটি অপরূপ নদী। জাদুকাটা নদীর স্বচ্ছ নীল জল এতটাই স্বচ্ছ যে নদীর তীর থেকেই আপনি নদীর তলদেশ দেখতে পাবেন। নদীতীরে সবখানেই বড় পাথরখণ্ডের সাথে দেখা মিলবে আপনার। জাদুকাটা নদী থেকে বেশকিছু খালের সৃষ্টি হয়েছে যেগুলো সুরমা নদীতে মিলিত হয়েছে।

নদীটির পাশেই প্রায় ১৫০ ফুট উচ্চতার একটি টিলা রয়েছে। স্থানীয়রা এই টিলাটিকে বারিক টিলা বলে থাকে। এই টিলায় অবস্থিত পিলারের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্ত নির্ধারণ করা হয়েছে।

জাদুকাটা নদী সুনামগঞ্জ জেলার হাওর অঞ্চলে অবস্থিত। একসঙ্গে টাঙ্গুয়ার হাওর ঘোরার প্রস্তুতি নিয়েই আপনাকে জাদুকাটার উদ্দেশে বের হতে হবে। ঢাকা থেকে সুনামগঞ্জ সরাসরি বাস সার্ভিস রয়েছে। মামুন, হানিফ, শ্যামলী, ইউনিকসহ অনেক বাস এই লাইনে চলে। ঢাকা থেকে সুনামগঞ্জের ভাড়া ৫৫০ টাকা। সুনামগঞ্জ থাকার ব্যবস্থা মোটামুটি। এখানে ৬ জন + টিম যাওয়াই ভালো। সুনামগঞ্জ থেকে তাহিরপুর যেতে হবে। দুইভাবে যাওয়া যায়। লেগুনাতে করে, ভাড়া পার পারসন ৮০ টাকা। বাইকে পার পারসন ১০০ টাকা।
তাহিরপুর যেয়ে নৌকা ভাড়া করতে হবে। নৌকার সাইজ অনুযায়ী ভাড়াও বিভিন্ন। নৌকায় রান্না করে খেতে চাইলে তাহিরপুর থেকে বাজার করে নৌকায় উঠতে হবে। সরাসরি জাদুকাটায় যেতে পারেন। আবার টাঙ্গুয়ার হাওর ঘুরেও জাদুকাটায় যাওয়া যায়। আমার পরামর্শ হবে টাঙ্গুয়ার হাওর ঘুরে টেকেরঘাট রাতযাপন।

টেকেরঘাটে হোটেলে থাকতে পারেন। থাকতে পারেন নৌকাতে। পরদিন লাকমাছড়া, লাইমস্টোন লেক ও টিলা ঘুরে মোটরসাইকেলে চলে যান বারিকটিলা। বারিকটিলা আর জাদুকাটা পাশাপাশি। টাঙ্গুয়ার হাওর ঘুরে মনে ভালোলাগা তৈরি হবে। টেকেরঘাট থেকে জাদুকাটা যাওয়ার পথটুকু সে ভালোলাগার মাত্রা বাড়িয়ে দেবে বহুগুণ আর জাদুকাটা আপনাকে ভালো লাগার স্বপ্নময় জগতে পৌঁছে দেবে!

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়