রাজারহাট ফটোগ্রাফী প্রতিযোগিতা


সোমবার,০৩/০৭/২০১৭

বর্তমানে ইন্টারনেটের খুবই পরিচিত নাম Google Search  যেখানে যেকোনো প্রান্তে বসে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সম্পর্কে সার্চ করলে বিভিন্ন প্রান্তের সম্পর্কে জানা যায়। পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যের সম্পর্কে সার্চ করলে সব রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে  সম্ভাবনায়, বিশ্বমানের অত্যাধুনিক শহর হিসাবে প্রজ্জ্বল এবং প্রতিভাত নাম রাজারহাট নিউটাউন অঞ্চল। বিশ্ব বাংলার ওয়েবসাইটে পেজেও প্রথম তারিফ কুড়িয়েছে এই শহর। কিন্তু আধুনিক রাজারহাটের ভিতরে রয়েছে আর একটা রাজারহাট। কলকাতা বিমানবন্দরে পিছনে যে বিশাল জনপদ সাবেক রাজারহাট হিসাবে পরিচিত, যেটি বিস্তৃত ভাঙ্গর সীমান্ত পর্যন্ত। যেখানে জাতি , বর্ণ নির্বিশেষে মানুষ বসবাস করছেন। সেখানে খুশির ঈদ,দোল, দূর্গা উৎসবের মত নির্ভেজাল আনন্দ উৎসবে এই রাজারহাটই আজ আধুনিকত্বের নগরউন্নায়ণ আর গ্রামীন চরিত্রের মেলবন্ধন গড়েছে। প্রযুক্তির সাথেপা মিলিয়ে কলকাতা শহরটা যখন ক্রমাগত পূর্বদিকে ক্রমাবর্ধমান তখন স্বাভাবিক কারণেই আজ রাজারহাটের স্কাইলাইনের সিলুয়েটের মত একের পর এক আকাশ চুম্বি হাইরাইজের সারি, দ্রুত অপসৃয়মান রাজাহাটের গ্রামীন চরিত্র। পরিকল্পিত নগরউন্নয়ণ মাধ্যমে প্রত্যন্ত গ্রামগুলিতে পৌছে যাচ্ছে উন্নত পরিকাঠামো , চিকিৎসা, শক্তি, পরিবহন, তথ্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থা, কর্পোরেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা এ এক অদ্ভুদ সংমিশ্রণ। তাই এই নিয়ে রাজারহাট পঞ্চায়েত সমিতির
দপ্তর রাজারহাটএর এই পরিবর্তিত পরিস্থিতি নগরায়ন ও গ্রামীন চরিত্রের মিশেল, আধুনিক ও সাবেক রাজারহাটের সংমিশন ইত্যাদি বিষয় নিয়ে এক ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। আপনার তোলা ছবি সরাসরি পাঠিয়ে দিন- আমাদের E-mail Address – [email protected] – এ আগামী ১২ ফেব্রুয়ারীর মধ্যে।
ফটো ই-মেল করলে এর সঙ্গে অবশ্যই নির্দিষ্ট ফর্ম টি পূরণ করবেন। Photo File Format , JPG , এবং File Size 10 MB নীচে থাকে। এর পর সেরা ২৫ টি ছবি বেছে নিয়ে বিশেষ প্রদর্শনীয় করা হবে।  প্রদর্শনীয় শেষে অভিজ্ঞ বিচারক মন্ডলি দ্বারা শ্রেষ্ঠ চিত্র গুলিকে পুরষ্কার দেবার ব্যবস্থা থাকবে।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়